FANDOM


ব্যক্তিত্ব ও চরিত্র

ডোরেমন স্টান্ড বাই মি তে ডোরেমনডোরেমন হল বিংশ শতাব্দীর নীল রোবট বিড়াল। তার ওজন ১২৯.৩ কেজি এবং উচ্চতা ১২৯.৩ সেঃমিঃ লম্বা। মাতসুশিবা রোপট ফ্যাক্টারি ২১১২ সালের ৩ সেপ্টেম্বর ডোরেমনকে প্রস্তুত করে। তার রোবট কোড এমএ৯ ৯০৩। ডোরেমনের অনেক রোবটিক্স বৈশিষ্ট্যে ক্রুটি ছিল। তাই ডোরেমনকে নিকৃষ্টমানের পণ্য হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছিল। ডোরেমন উৎপাদনের সময় বিদ্যুৎ বজ্রপাতের শিকার হয়ে একটি স্ক্রু হারিয়ে ফেলে। স্ক্রুটি ছিল ডোরেমনের ব্রেন বা মস্তিষ্কের অংশ। এটা তার শিক্ষা আর সামাজিক উভয় জীবনে প্রভাব ফেলে। দ্য ডোরেমনস নামক স্পীন অফ মাঙ্গা সিরিজ অনুসারে ডোরেমনের আসল রং হলুদ। তার রং পরিবর্তন হয় যখন রোবট ইঁদুর তার কান চিবিয়ে খায়। এই কারণে ডোরেমনের ভয়ে ডেভোলপের ভয় জাগে এবং সে টাওয়ারের উপরে উঠে। তখন সে টাওয়ারের উপর থেকে পিচ্ছলে নিচে পড়ে যায়। নিচে পড়ে সে ভুল করে দুঃখের মিশ্রণ পান করেছিল। দুঃখের মিশ্রণ তাকে কাঁদতে উদ্দীপ্ত করে এবং ডোরেমন কাঁদতে শুরু করে। কান্নার পানিতে তার শরীরের হলুদ রং ধুয়ে যায় এবং তার কণ্ঠ গভীর হয়।

ডোরেমনের পেটে ফোরর্থ ডাইমেনশন্যাল পকেট আছে। ভবিষ্যতের ডিপার্টমেন্ট স্টোর থেকে আনা গ্যাজেট, যন্ত্রপাতি, খেলার সামগ্রীগুলো তার পকেটে রাখে। ডোরেমন এইগুলো ব্যবহার করে নোবিতা নোবিকে সাহায্য করে। যখন নোবিতা বিপদে পড়ে তখন গ্যাজেট ব্যবহার করে ডোরেমন নোবিতাকে উদ্ধার করে। মাঝেমাঝে নোবিতা দুষ্টুমীর উদ্দেশ্যে ডোরেমনের পকেট থেকে গ্যাছেট চুরি করে। যার ফলে রাগান্বিত হয়।

Doraemon eating largest dorayaki

ডোরেমন এক ঘর সমান বড় ডোরায়্যাকি খাচ্ছে

ডোরেমন রহস্যময়ী বিড়াল। ডোরেমন অন্য বিড়ালদের থেকে আলাদা। অন্য বিড়ালেরা ক্যাট ফুড খেতে পছন্দ করে। কিন্তু ডোরামেন ডোরায়্যাকি অথবা ডোরাকেক খেতে পছন্দ করে। ডোরায়্যাকি না খেয়ে সে একদিন থাকতে পারেনা। মাঝে মাঝে তাকে ডোরায়্যাকির লোভ দেখিয়ে গ্যাজেট নেয়। ডোরেমনের কাছে একটা বিশ্বকোষ আছে। যেটাতে ডোরায়্যাকির দোকানের তালিকা ও ঠিকানা আছে। ডোরেমন ৩০তম ডোরায়্যাকি প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে। সে প্রতিযোগিতা জয়ী হয়। প্রতিযোগিতায় ডোরেমন এক ঘরের সমান বড় একটি ডোরায়্যাকি খুব দ্রুত খেয়ে ফেলে। এর সাথে দ্রুত ডোরায়্যাকি খাওয়ার গিনেস বিশ্বরেকর্ড গড়েন।ডোরেমন তার ডোরায়্যাকি কারোর সাথে শেয়ার করতে পছন্দ করেনা। কেউ যদি তার ডোরায়্যাকি চায় তাহলে সেই রাগান্বিত হয়।

ডোরেমনকে ভবিষ্যত থেকে পাঠিয়েছে সেয়াসি। সেয়াসি হল নোবিতার নাতি। মাঝেমাঝে ডোরেমনের বোন ডোরামি ২২শ শতাব্দী থেকে বর্তমান সময় আসে। এই সময়ে সে ডোরেমনকে ২২শ শতাব্দীতে হাসপাতালে পাঠায়। সেখানে ডোরেমনে মেডিকেল চেক আপ হয়। কিন্তু ডোরেমন যেতে চায় না। সে নোবিতার চিন্তা করে। সে নোবিতাকে ছাড়া থাকতে চায় না।

এক পর্বে ডোরেমন নোবিতাকে একটি পুতুল দেয়। যেটি তাকে ভালো উপদেশ দেবে।

পর্বের শেষের দিকে ডোরেমন তার স্ক্রু হারিয়ে ফেলে। সে প্রচুর অসুস্থ হয়ে পড়ে। তখন নোবিতা তাকে প্রতিশ্রুতি দেয় যে যে করে হক তাকে বাঁচাবে। তখন পুতুল নোবিতার বাড়ির কাজ শেষ করতে বলে। কিন্তু নোবিতা রাজি হয়না তাকে ত্যাগ করে, আর স্ক্রু খোঁজায় মন দেয়। পুতুলটি জিয়ানের সাথে চলে যায়। অনেক সময় পরে নোবিতা স্ক্রু খুঁজে আনে। আর তাড়াতাড়ি ডোরেমন সুস্থ হয়ে উঠে।

ডোরেমন মেয়ে বিড়াল দেখলে পাগল হয়ে যায়। সে তার ভালবাসায় পতিত হয়। তখন সে কারোর কথা মনে রাখেনা, এমনকি ডোরায়্যাকির কথাও ভুলে যায়। ডোরেমনের সাথে তার প্রতিবেশী বিড়ালদের গভীর সম্পর্ক। তাদের জন্য সে নানা রকম পার্টির আয়োজন করে। ডোরেমন পশুপাখি, মানুষ সকলকে সাহায্য করে।

ডোরেমন নামের উৎপত্তি

"ডোরেমন" নামটি সম্ভবত বাংলা অনুবাদ হতে পারে "পথভ্রষ্ট। বাংলা ভাষায় "ডোরেমন" বানান "দোরাএমোন্" এর ইংরেজি প্রতিলেপন। তাই বাংলা ভাষায় আসল বানান "দোরাএমোন্" না লিখে "ডোরেমন" লেখা হয়।

  • "দোরা" শব্দটি নেওয়া হয়েছে "দোরা নিকো" শব্দ থেকে। যার অর্থ "নির্লজ্ঝ বা পথভ্রষ্ট বিড়াল"।
  • "এমোন্" হচ্ছে "গেইমন" এর মতন পুরুষ প্রদত্ত নামের একটি উপাদান।

জাপানি ভাষায় "কাতাকানা" এবং "হিরাগানার" শৈল্পিক মিশ্রণ।

নোবি নোবিতা আর ডোরেমনের সম্পর্ক

ডোরেমন আর নোবিতা ২ "তুমি অলস,পড়ালেখায় খারাপ, কোন কাজের না, কাপুরুষ, খেলাধুলায় খারাপ"-ডোরেমন ডোরেমন আর নোবিতা সত্যিকারের বন্ধু। তারা সুখে, দুঃখে সবসময় এক অপরের পাশে এসে দাড়িয়েছে। তারা একে অপরকে ছাড়া এক মূহূত্য থাকতে পারেনা। ডোরেমন আর নোবিতা ১ "নোবিতা তুমি অলস, কাপুরুষ, পড়ালেখায় অমনোযোগী কিন্তু তুমি সত্যিকারের সৎ ছেলে"-ডোরেমন নোবিতা একবার ভাবে "আমি ভাল কাজ করি,কিন্তু কেউ আমার কোন প্রশংসা করেনা। তাই খারাপ কাজ করব।" ডোরেমন তাকে বাধা দেয়ার জন্য তাকে একটা টুপি দিয়ে বলে,"এটা পরলে তুমি খারাপ কাজ করবে"। কিন্তু নোবিতা দেখে এটার জন্য সে আরো বেশি ভাল কাজ করছে। তখন নোবিতা ক্যাপ ফেলে দেয়। পাহাড়ে গিয়ে বসে থাকে। তখন এক বিড়াল ছানা পাহাড়ের গাছের উপর থেকে পাহাড়ের নিচে পড়ে যাচ্ছিল। তখন প্রাণের ঝুঁকি নোবিতা তাকে বাঁচায়। তখন ডোরেমন বলে," নোবিতা তুমি কাপুরুষ,তুমি পড়ালেখায় খারাপ, অলস, খেলাধুলায় খারাপ কিন্তু সত্যিকারের সৎ ছেলে। তোমার মত কোন সৎ ছেলে পাওয়া দুর্লভ।"

শিজুকার সাথে ডোরেমনের সম্পর্ক

"সে খুবই সুন্দরী"-শিজুকাকে প্রথম দেখায় ডোরেমন ডোরেমন আর শিজুকা ভাল বন্ধু। শিজুকা প্রায় নোবিতা আর ডোরেমনকে তার রান্না করা খাবার খেতে নিমন্ত্রণ দেয়। কিছু কিছু পর্বে নোবিতার মতও ডোরেমন শিজুকার চিন্তা করে।

সুনিও এর সাথে ডোরেমনের সম্পর্ক

সুনিও আর ডোরেমন ভাল বন্ধু। ডোরেমন সুনিওকে প্রায় সাহায্য করে। সুনিও নোবিতাকে দেখে হিংসা করে। কারণ নোবিতার কাছে সুন্দর একটা রোবট বিড়াল আছে।

জিয়ানের সাথে ডোরেমনের সম্পর্ক

জিয়ান আর ডোরেমন ভাল বন্ধু। জিয়ান রাগী হলেও সে আর ডোরেমন তার বন্ধুদের রক্ষার চেষ্টা করে। জিয়ান নোবিতার সাথে মারপিট করলেও তার সাথে নোবিতার ভাল সম্পর্ক।

নানা বিড়ালের সাথে ডোরেমনের সম্পর্ক

ডোরেমন আর মি চ্যান ১

ডোরেমন মি চ্যানের ভালবাসায় পাগল

ডোরেমন আর মি চ্যান ২

ডোরেমন মি চ্যানকে উপহার দিচ্ছে।

তামা: ডোরেমনের সাথে ইরিমোতো দ্বীপে আহরণ করে।

মি চ্যান:মি চ্যান হল পারস্যীয় বিড়াল। এটা নোবিতার বাসার পাশে থাকে। ডোরেমন একে খাবার দিয়ে লালন পালন করে। ডোরেমন মি চ্যান কে পছন্দ করে।

নাকাম্যোকো:নাকাম্যোকো হলে ডোরেমনের ২২শ শতাব্দীর বান্ধবী। কান হারিয়ে যাওয়ায় তার সাথে সম্পর্ক ভেঙ্গে যায়।

অন্যান্য ভাষায় ডোরেমনের নাম ও উচ্চারণ

  • .চীনা: 哆啦A梦/小叮当 [哆啦A梦/小叮噹], duō lā A mèng/xiǎo dīng dāng
  • .কোরীয়: 도라에몽, dora-emong
  • .হিন্দি: डोरेमोन, ḍōrēmōn
  • .আরবি: عَبْقُورْ, abqūr
  • .রুশ : Дораэмон, doraemon
  • .থাউ: โดราเอมอน, doh-raa-ay-mon
  • .হিব্রু: דוֹרֵימוֹן, doreymon
  • .তেলেগু:డోరేమాన్, ḍōrēmān
  • .ফিলিপাইনো: Doraemon (Pronunciation:do-raa-ay-mon)
  • .ভিয়েতনামী: Đôrêmon, Doraemon
  • .ইতালীয় : Doh-fo-ro
  • .স্পেনীয় : Doraemon
  • .বাংলা: ডোরেমন, Dorēmon
  • .ইংরেজি : Doraemon
  • . তামিল: டோரிமோன், Doraemon